সর্বশেষ

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

Responsive Advertisement

গাবতলী, মহাখালী বাস টার্মিনালগুলি 12কোটি টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছে

 


Dhaka উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) এক বছরের জন্য উন্মুক্ত 



দরপত্রের মাধ্যমে গাবতলী ও মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালকে এক বছরের জন্য লিজ দিয়েছে।


সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ চেক হস্তান্তর করেন


মঙ্গলবার বিকেলে গুলশানের ডিএনসিসির নগর ভবনে ডিএনসিসির মেয়র 

আতিকুল ইসলাম দু'টি টার্মিনালের দায় ধার ধারধারীর কাছে হস্তান্তর করেন।


গাবতলী বাস টার্মিনালটি রফি ট্রেডার্স লিমিটেডকে 7 কোটি 39 লাখ 20 

হাজার টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছিল। সংগঠনের ব্যবস্থাপনা পরিচাল

ক মোঃ লিয়াকত হোসেন মেয়রের কাছ থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।



অন্যদিকে, গাজী রায়য়ান এন্টারপ্রাইজ মহাখালী বাস টার্মিনালের লিজ পেয়েছে ৪ কোটি 62২ টাকায়। গাজী 

রায়য়ান 

এন্টারপ্রাইজ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি গাজী মেসবাহুল হোসেন (সাচ্চু) এর 

অন্তর্গত। 

মেসবাহুল 

হোসেন নিজেই মেয়র থেকে মহাখালী বাস টার্মিনালের দায়িত্ব নিয়েছিলেন।


সূত্র জানায়, ডিএনসিসি রাজস্ব আয় বৃদ্ধির জন্য উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে উভয় টার্মিনালের জন্য ইজারা 

নিয়োগের সিদ্ধান্ত 

নিয়েছে।


চার্জ হস্তান্তরকালে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছিলেন, "এর আগে এই বাস টার্মিনাল থেকে প্রত্যাশিত স্তর 

পর্যন্ত রাজস্ব 


আদায় করা যেত না। আমি যখন এসেছি তখন দেখলাম অনেক ত্রুটি ছিল। তারা রাজস্ব আদায় করেনি। 

বিভিন্ন অজুহাতে 

ডিএনসিসি। পরীক্ষিত মহলগুলি সুবিধা নিচ্ছিল। "



মেয়র জানান, খোলা দরপত্রের মাধ্যমে ইজারা দেওয়া হয়েছিল। ভাসমান উন্মুক্ত দরপত্র নেওয়ার সিদ্ধান্তের 

কারণে 

ডিএনসিসির কর্মকর্তাদের হুমকি দেওয়া হয়েছিল। "আমি তাদের বলেছিলাম যে কারও হুমকির প্রতি 

মনোযোগ না 

দেওয়া," 

তিনি বলেছিলেন।


আতিকুল ইসলাম আরও বলেন, নতুন ইজারাদারকে বাস টার্মিনালে সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতে বলা 

হয়েছে। তারা ব্যর্থ 

হলে তাদের চুক্তি বাতিল হয়ে যাবে বলেও জানান তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ